আরাকান রাজসভায় বাংলা সাহিত্য :

আরাকানকে বাংলা সাহিত্য কি নামে উল্লেখ করা হয়েছে?উঃ রোসাং বা রোসাঙ্গ নামে।
আরাকান রাজসভায় বাংলা সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য সাহিত্যিকের নাম কি কি?উঃ দৌলত কাজী, আলাওল, কোরেশী মাগন ঠাকুর, মরদন, আব্দুল করিম খোন্দকর।
কবি আলাওল কোথায় জন্মগ্রহন করেন?উঃ ফতেহাবাদের জালালপুরে।
মাগন ঠাকুর কে ছিলেন?উঃ রোসাঙ্গ রাজ্যের প্রধানমন্ত্রী।
‘নসীহত নামা’ কোন জাতীয় গ্রন্থ ? কে রচনা করেছেন?উঃ মরদন রচিত কাব্যগ্রন্থ।
“পদ্মাবতী” কোন জাতীয় রচনা?উঃ ঐতিহাসিক প্রণয় উপাখ্যান।
কোন ঐতিহাসিক কাহিনী নিয়ে আলাওল পদ্মাবতী কাব্য রচনা করেন?উঃ চিতোরের রানী পদ্মীনির কাহিনী।
আলাওলের অন্যান্য রচনা কি কি?উঃ তোহফা, সেকান্দারনামা, সঙ্গীতন শাস্ত্র (রাগতাল নামা),     বাংলা ও ব্রজবুলি ভাষায় রাধাকৃষ্ণ রূপকে রচিত পদাবলী ইত্যাদি।


কার আদেশে দৌলত কাজী সতি ময়না ও লোরচন্দ্রানী’ কাব্য রচনা করেন?উঃ শ্রী সুধর্ম রাজার আমলে তাঁর লঙ্কর উজির আশরাফ খানের।
‘সতি ময়না ও লোরচন্দ্রানী’ কোন শতকের কাব্য?উঃ সপ্তদশ শতাব্দী।
সতী ময়না ও লোরচন্দ্রানী হিন্দি ভাষার কোন কাব্য অবলম্বনে রচিত?উঃ হিন্দী কবি সাধন এর ‘মৈনাসত’।
“পদ্মাবতী” কে রচনা করেন?উঃ মহাকবি আলাওল।

আরো পড়ুন: