Contact for queries :

চর্চা হবে অনলাইনে, যখন খুশি তখন

চর্চা হবে অনলাইনে, যখন খুশি তখন

চর্চা হবে অনলাইনে, যখন খুশি তখন

ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে হলে যা আপনাকে জানতেই হবে

আজকাল প্রায়ই শুনা যায় অনেকের ফেসুবক একাউন্ট হ্যাকের শিকার হচ্ছে। ফলে হ্যাকারদের কবলে পরে অনেকের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিগত তথ্য চলে যাচ্ছে হ্যাকারদের কাছে। এসব তথ্য ব্যবহার করে অনেক সময় ব্লাক মেইল পর্যন্তও করা হয়। ব্যাক্তিগত তথ্য ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দেখিয়ে অনেক সময় হ্যাকাররা ব্লাক মেইল করে অনেক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার মতোও ঘটনা ঘটছে। কিন্তু আমরা একটু সচেতন থাকলে এরকম পরিস্থিতির শিকার হতে হবেনা। আজকে আমরা ফেসবুকের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস এবং কিভাবে ফেসবুকে নিরাপদ থাকা যায় সেই সম্পর্কে জানবো।


প্রথমে কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাকঃ

০১। Use two-factor authentication:

আমি যদি একদম সহজভাবে বলি two-factor authentication হলো এমন একটি সিস্টেম যেটা আপনার ফেসবুকে/ইমেইলে অথবা অন্যকোনো একাউন্টে Enable করা থাকলে আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড কেউ জানলেও আপনার একাউন্টে আপনাকে ছাড়া লগইন করতে পারবে না। এটা Enable করা থাকলে নতুন ডিভাইন থেকে আপনার একাউন্টে লগইন করতে গেলে পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরে আপনার ফোন নম্বরে অথবা Authenticator App-এ একটি ইউনিক (OTP) পাসওয়ার্ড চলে যাবে। যেটা ব্যবহার করে আপনাকে নতুন ডিভাইসে লগইন করতে হবে। এজন্য অবশ্য আপনাকে আপনার একাউন্টে একটি ফোন নম্বর অথবা Authenticator App কানেক্ট করে ভেরিফাইড করে নিতে হবে। এক্ষেত্রে আমি সাজেস্ট করবো Google Authenticator App টা ব্যবহার করার জন্য। কারণ- ফোন নম্বর ব্যবহার করলে অনেক সময় ইউনিক কোডটি পেতে দেরি হয়। এছাড়া গুগল অথেনটিকেটর এ্যাপটির আরেকটি অন্যতম সুবিধা হলো ইন্টারনেট সংযোগ ছাড়াই এটি ইউনিক কোডটি দিতে পারে। আসুন এবারে দেখে নেওয়া যাক কিভাবে Tow-factor Authentication Enable করা যায়।


Tow-factor Authentication Enable করার জন্য আপনাকে আপনার ফেসবুকের সেটিংস অপশন থেকে Security and Login এ ক্লিক করতে হবে। এরপরে Get Started ক্লিক করতে হবে। পরের ধাপে আপনি OTP কোডটি কিভাবে পেতে চান সেটি সিলেক্ট করে দিতে হবে। এক্ষেত্রে Text Message সিলেক্ট করলে আপনার ফোন নম্বরটি ভেরিফাইড করার জন্য একটি কোড আসবে, কোডটি দিয়ে ভেরিফাই করে নিতে হবে। অন্যদিকে Authenticator App সিলেক্ট করলে Google Authenticator App টি প্লেস্টোর থেকে ইন্সটল করে স্কেন অথবা ফেসবুকে থেকে পাওয়া Security Key দিয়ে ভেরিফাই করে কানেক্ট করে নিতে হবে। বুঝতে অসুবিধা হলে নিচের ফটোগুলি দেখুনঃ

ফেসবুক-নিরাপত্তা
ফেসবুক-নিরাপত্তা
ফেসবুক-নিরাপত্তা
ফেসবুক-নিরাপত্তা
ফেসবুক-নিরাপত্তা
ফেসবুক-নিরাপত্তা

বিঃ দ্রঃ কোনো কারণে আপনার অথেনটিকেটর এ্যাপ কাজ না করলে অথবা সিম বন্ধ হয়ে গেলে সমস্যায় পড়তে পারেন। তাই Two-Factor Authentication এর Added Security অপশনের Recovery Codes অনশন থেকে ১০ টি ইউনিক সিকিউরিটি কোড ডাউনলোড করে নিরাপদ স্থানে সংরক্ষণ করবেন।

ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে হলে ফেসবুক ব্যবহারে কিছু সচেতনতা সম্পর্কে জানতে হবেঃ

  1. ফেসবুকে জন্মতারিখ প্রাইভেসি সবসময় Only Me করে রাখবেন।
  2. ট্রাস্টেট কনটেক্ট লিস্টে কমপক্ষে ৩ জন বন্ধকে এ্যাড করে রাখবেন। আপনার একাউন্ট কোনো কারণে লক হয়ে গেলে তাদের সহায্য লাগবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার বিশ্বস্ত ব্যাক্তিদের এখানে এ্যাড করবেন।
  3. Get alerts about unrecognized logins On করে রাখবেন। এক্ষেত্রে আপনার একাউন্টে অন্যকেউ লগইন করার চেষ্টা করলে আপনার কাছে নোটিফিকেশন/মেসেজ চলে আসবে।
  4. আপনার মেসেঞ্জারে আসা কোনো অপরিচিত লিংকে ক্লিক করবেন তবে। একান্তই ক্লিক করার প্রয়োজন হলে ভালোভাবে জেনে বুঝে তারপর ক্লিক করবেন।
  5. যতদুর সম্ভব ফেসবুকে লোকেশন শেয়ার না করার চেষ্টা করবেন।
  6. ইমেইল এবং ফোন নম্বরের প্রাইভেসি সর্বদাই Only Me করে রাখবেন।
  7. অপরিচিত কারো বন্ধুত্বের অনুরোধ না গ্রহণ করাই ভালো।
  8. প্রতি মাসে অন্তত্য একবার হলেও ফেসবুকের Security and Login সেটিংস থেকে
    Where You’re Logged In অপশনে গিয়ে আপনার ফেসবুক একাউন্ট কোথায় কোথায় লগইন করা আছে তা যাচাই করবেন। কোনো সন্দেহজনক ডিভাইস লগইনের তথ্য দেখলে সাথে সাথে Log Out করে দিবেন অথবা Log Out Of All Sessions অপশনে ক্লিক করবেন।
  9. Timeline and Tagging সেটিংস থেকে টাইমলাইন রিভিউ চালু করে দিবেন। তাহলে আপনার অনুমতি ছাড়া আপনাকে কেউ ট্যাগ করতে পারবেন না।
  10. সম্ভব হলে Face Recognition Settings টি Enable করে রাখবেন। তাহলে আপনার ফটো অথবা ভিডিও কেউ আপলোড করলে আপনার কাছে নোটিফিকেশন মেসেজ চলে আসবে।
  11. যেহেতু প্রযুক্তির উন্নতির সাথে সাথে হ্যাকাররা নতুন নতুন কৌশল অবলম্বন করতেছে, তাই ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে হলে প্রযুক্তির সাথে আমাদেরকেও আপডেট থাকতে হবে।

আজকে আবাদত এখানেই শেষ করছি। ফেসবুক সিকিউরিটি বিষয়ক কোনো প্রশ্ন থাকলে অথবা কোনো বিষয়ে বুঝতে না পারলে আমাকে মেসেজ করতে পারেন। যতদুর সম্ভব আমি আপনাকে হেল্প করার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ। ফেসবুক সিকিউরিটি বিষয়ক আরো কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন। ফেসবুকে আমিঃ Al-Amin Islam

আরো পড়ুন:

May 11, 2019

0 responses on "ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে হলে যা আপনাকে জানতেই হবে"

Leave a Message

Your email address will not be published. Required fields are marked *

amarstudy.com_logo

কেন amarStudy.com?

amarStudy.com এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি বিভিন্ন বিষয়ের উপরে অসংখ্যা MCQ পাবেন এবং মডেল টেস্ট দিয়ে নিজেকে যাচাই করতে পারবেন। শুধু মডেল টেস্ট নয়, এখানে আপনি প্রতি মাসের সাম্প্রতিক ঘটনাবলি, বিভিন্ন শিক্ষামূলক ব্লগ এবং ইবুক পড়তে পারবেন। আমাদের সবথেকে বড় সুবিধা হলো এখানে আপনি পড়তে পারবেন, পড়া শেষ করে মডেল টেস্ট দিতে পারবেন এবং মডেল টেস্টের ফলাফল পেয়ে যাবেন সাথে সাথেই।

Who’s Online

There are no users currently online

Categories

top
error: Content is protected !!