প্রশ্নঃ নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ?
ক. পরিস্কার
খ. তিরস্কার
গ. আবিস্কার
ঘ. নমষ্কার
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ ঋ, র, ষ এর পরস্থিত কোন বর্ণের পরে ণ হয় ?
ক. ধ
খ. ম
গ. শ
ঘ. ত
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কোন ক্ষেত্রে ণ-ত্ব বিধানের নিয়ম ঠিক থাকে না ?
ক. দুটি বর্ণের মিলনে সন্ধি হলে
খ. সমাসবদ্ধ দুপদের পার্থক্য থাকলে
গ. কারক নির্ণয়ে
ঘ. শব্দের বানানে
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ শুদ্ধ বানানটি হচ্ছে-
ক. নিসুতী
খ. নিসুতি
গ. নিষুতী
ঘ. নিষুতি
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ নিচের কোন বানানটির ক্ষেত্রে মূর্ধন্য ষ হবে ?
ক. পরিস্কার
খ. ধূলিসাৎ
গ. পুরস্কার
ঘ. মাষ্টার
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন বানানটি শুদ্ধ ?
ক. ষোড়শ
খ. কলুশ
গ. আভাশ
ঘ. অভিলাস
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ‘ট’-বর্গীয় ধ্বনির আগে কোনটি ব্যবহৃত হয়?
ক. ‘ন’
খ. ‘ন্ন’
গ. ‘ণ’
ঘ. ‘ন্য’
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ কোন শব্দটির বানান সঠিক ?
ক. দোষণীয়
খ. দূষণীয়
গ. দূষনিয়
ঘ. দোষনীয়
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ মূর্ধন্য ষ হয় না কোন প্রত্যয়ে ?
ক. সাৎ
খ. ন্যায়
গ. ন্যাৎ
ঘ. স্যাম
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন বানানটি শুদ্ধ ?
ক. নিপুন
খ. কর্তণ
গ. অভ্যন্তরীন
ঘ. ঋণ
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ সংস্কৃত সাৎ প্রত্যয় যুক্ত পদে কোনটি হয় না ?
ক. তালব্য শ হয় না
খ. দন্ত স হয় না
গ. মূর্ধন্য ষ হয় না
ঘ. মূর্ধন্য ণ হয় না
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ ট ও ঠ এর আগে মূর্ধন্য ষ হয়। উদাহরণ কোনটি ?
ক. কৃষক, তৃষ্ণা
খ. বিষয়
গ. বিষ
ঘ. কষ্ট, কাষ্ট
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ সমাসবদ্ধ শব্দে দু’ পদের অর্থের প্রাধান্য থাকলে ণ -ত্ব বিধান খাটে না এরূপ ক্ষেত্রে ন হয়। উদাহরণ কোনটি ?
ক. অনুষঙ্গ
খ. যতন
গ. রতন
ঘ. ত্রিনয়ন, সর্বনাম, দুর্নীতি
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ?
ক. পুরস্কার
খ. পরিস্কার
গ. পুরষ্কার
ঘ. পোষাক
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ কোন তিনটি বর্ণের পর ‘ন’ হলে, তা মূর্ধন্য ‘ণ’ হয়?
ক. ক, গ, ঘ
খ. চ, ছ, জ
গ. ঋ, র, ষ
ঘ. প, ব, হ
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ তদ্ভব শব্দে সর্বদাই কি হয়?
ক. ন
খ. ণ
গ. ন্ন
ঘ. ণ্ন
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন শব্দে ষ এর ব্যবহার পাওয়া যায় না ?
ক. দেশী ও বিদেশী শব্দে
খ. দেশী, বিদেশী ও তদ্ভব শব্দে
গ. বিদেশী শব্দে
ঘ. সংস্কৃত শব্দে
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কোন বানানটি শুদ্ধ নয় ?
ক. পুরস্কার
খ. আবিস্কার
গ. পরিস্কার
ঘ. প্রতিষেধক
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ ঋ, র, ষ এর পরে কি থাকলে পরবর্তী ন মূর্ধন্য ণ হয় ?
ক. শ, ষ, স
খ. য, ব, হ
গ. হ, র, ল
ঘ. চ, ছ, জ
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কোন শব্দে ণ-ত্ব বিধান প্রযোজ্য নয় ?
ক. সন্ধিসাধিত
খ. সমাসসাধিত
গ. প্রত্যয়সাধিত
ঘ. উপসর্গসাধিত
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কোনটি শুদ্ধ বানান?
ক. নির্নিমেষ
খ. নির্ণিমেষ
গ. ণির্নিমেষ
ঘ. ণির্ণিমেষ
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন বানানটি শুদ্ধ ?
ক. পাষান
খ. ভাষন
গ. পোষণ
ঘ. ভূষন
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ কোন শব্দের ণ এর সঠিক ব্যবহারের নিয়মকে ণ-ত্ব বিধান বলে ?
ক. তৎসম
খ. দেশী
গ. বিদেশী
ঘ. তদ্ভব
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব বিধানের নিয়ম সঠিকভাবে প্রয়োগ না হলে কি সমস্যা দেখা যায়?
ক. অর্থের পার্থক্য ঘটে না
খ. অর্থের পার্থক্য ঘটে
গ. অর্থের রূপ পরিবর্তিত হয়
ঘ. বর্ণের রূপ পরিবর্তিত হয়
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ নিচের কোনটি শুদ্ধ?
ক. ত-এর পর ‘ন’ ‘ণ’ হয়
খ. ট-এর পর ‘ন’ ‘ণ’ হয়
গ. ঋ-এর পর তৎসম শব্দে ‘ন’ ‘ণ’ হয়
ঘ. প-এর পর ‘ন’ ‘ণ’ হয়
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ নিচের কোন শব্দে নত্ব বিধি অনুসারে ‘ণ’- এর ব্যবহার হয়ে?
ক. কল্যাণ
খ. প্রবণ
গ. নিক্কণ
ঘ. বিপণি
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কৃপণ, হরিণ, অর্পণ এগুলো কিসের উদাহরণ?
ক. ষ-ত্ব বিধানের
খ. পদান্বয়ী অব্যয়ের
গ. ণ-ত্ব বিধানের
ঘ. ব্যাকরণের নিয়মের
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ বাংলা ভাষায় বহু তৎসম শব্দ কি অবস্থায় পাওয়া যায় ?
ক. বিকৃত
খ. অবিকৃত
গ. বিকৃত ও অবিকৃত
ঘ. কোনটিই নয়
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ নিচের কোনটিতে মূর্ধন্য ষ এর প্রয়োগ হয় না ?
ক. সমাসযুক্ত তৎসম শব্দে
খ. সন্ধিযুক্ত তৎসম শব্দে
গ. প্রত্যয়যুক্ত তৎসম শব্দে
ঘ. অব্যয়যুক্ত তৎসম শব্দে
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ নিম্নের কোন বানানটির ক্ষেত্রে মূর্ধন্য ‘ণ’ হবে?
ক. নিপাতন
খ. কৃপণ
গ. জীবন
ঘ. বিনিময়
উত্তরঃ খ

আরো পড়ুন: