প্রশ্নঃ বহুবচন বা আধ্যিক বোঝাতে কোন বাক্যে দ্বিরুক্ত শব্দের প্রয়োগ হয়েছে?
ক. ‘এদিকে রোগীর তো জান যায় যায় অবস্থা’
খ. ‘সে সে লোক গেল কোথায়’
গ. ‘দেখে দেখে যেও’
ঘ. ‘ডেকে ডেকে হয়রান হলাম’
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ ছি! ছি! তুমি এ খারাপ কাজটি করতে পারলে ? এই বাক্যে ছি! ছি!’ কি অর্থে প্রকাশ করছে ?
ক. অনুভূতি
খ. ভাবের গভীরতা
গ. তীব্রতা
ঘ. পৌনঃপুনিকতা
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ নিচের কোনটি একই বিভক্তি প্রয়োগ দ্বিরুক্তি ?
ক. ঘরে ঘরে
খ. ঝির ঝির
গ. বড় বড়
ঘ. ছোট ছোট
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোনটি ধ্বন্যাত্মক দ্বিরুক্তির উদাহরণ?
ক. ঝম-ঝম
খ. ভাল-ভাল
গ. রাশি-রাশি
ঘ. ঘন-ঘন
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ছেলেটিকে চোখে চোখে রেখো। এই পদাত্মক বাক্য দ্বিরুক্তি ‘চোখে চোখে’ কি অর্থ প্রকাশ করছে?
ক. ভাবের প্রগাঢ়তা
খ. আধিক্য
গ. সামান্যতা
ঘ. সতর্কতা
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ ‘কাটিতে কাটিতে ধান এল বরষা’-এই বাক্যে ‘কাটিতে কাটিতে’ দ্বিরুক্তি কি অর্থ প্রকাশক?
ক. ব্যঙ্গ
খ. পৌনঃপুনিকতা
গ. ধারাবাহিকতা
ঘ. প্রাচুর্য
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ ‘চিকমিক করে বালি কোথা নাই কাদা’। দ্বিরুক্ত শব্দটি কোন্ পদরূপে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. ক্রিয়াবিশেষণ
খ. বিশেষ্য
গ. ক্রিয়া
ঘ. বিশেষণ
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ‘ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে শুনলে কিভাবে’? এখানে ‘ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে’ কি অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. ক্রিয়া-বিশেষণ
খ. সামান্য
গ. আধিক্য
ঘ. তীব্রতা
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ‘ঝির ঝির’ করে বাতাস বইছে? এখানে ‘ঝির ঝির’ কি অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. বিশেষণ অর্থে
খ. ধ্বনির ব্যঞ্জনা অর্থে
গ. ভাবের গভীরতা অর্থে
ঘ. আগ্রহ অর্থে
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ ‘কবি কবি ভাব কিন্তু ছন্দের অভাব, – কবি কবি কি অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে ?
ক. ভাল অর্থে
খ. পুনরাবৃত্তি অর্থে
গ. পৌনঃপুনিকতা অর্থে
ঘ. উপহাস অর্থে
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে শুনলে কিভাবে ? এ বাক্যে (ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে) কোন প্রকার মাপের শব্দের দ্বিরুক্ত ?
ক. সর্বনাম
খ. বিশেষণ
গ. অব্যয়
ঘ. ক্রিয়াবাচক
উত্তরঃ ঘ

প্রশ্নঃ অনুকার অব্যয়যোগে গঠিত দ্বিরুক্তি কোনটি?
ক. ধামা-ধামা ধান আছে
খ. আমি জ্বর-জ্বর বোধ করছি
গ. ঢং ঢং করে ঘণ্টা বেজে ওঠলো
ঘ. এত তোড়-জোড় করে কাজ করাটা ঠিক হবে না
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ ‘রিরি করা’ দ্বারা কি প্রকাশ পায়?
ক. তীব্র ক্রোধ
খ. তীব্র ব্যাথা
গ. কড়া কথা
ঘ. কড়া মেজাজ
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ শব্দ দ্বৈত অর্থ কি ?
ক. দুটি শব্দের পাশাপাশি ব্যবহার
খ. একই শব্দ দুবার ব্যবহার করে নতুন অর্থ প্রদান
গ. দুটি শব্দ সহযোগে অর্থ দুর্বোধ্য করা
ঘ. দুটি শব্দের প্রারম্ভিক ব্যবহার
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ বিশেষণ বোঝাতে কোন বাক্যে দ্বিরুক্ত শব্দের প্রয়োগ হয়েছে?
ক. ‘ঝির ঝির’ করে বাতাস বইছে
খ. পিলসুজে বাতি জ্বলে ‘মিটির মিটির’
গ. ‘ফোঁড়াটা ‘টন টন’ করছে
ঘ. ‘ছি ছি’ তুমি কি করেছ
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ নিচের কোন দ্বিরুক্ত শব্দে একই শব্দের অবিকৃত প্রয়োগ পরিলক্ষিত হয়?
ক. টপাটপ
খ. টাপুর টুপুর
গ. পটপট
ঘ. বকবকানি
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ দেখেছ তার কবি কবি ভাব?
ক. সামান্য অর্থে
খ. গভীরতা অর্থে
গ. অনুকার অব্যয় অর্থে
ঘ. পদভিত্তিক অর্থে
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন শব্দে যুগ্মরীতিতে গঠিত দ্বিরুক্ত পদের ব্যবহার হয়েছে?
ক. চোখে-চোখে
খ. আকাশে-বাতাসে
গ. থেকে-থেকে
ঘ. হাড়ে-হাড়ে
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ শব্দের আদি স্বরের পরিবর্তন করে যুগ্মরীতিতে দ্বিরুক্ত শব্দ কোনটি?
ক. চুপচাপ
খ. মারামারি
গ. ছটফট
ঘ. সরাসরি
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ সমার্থক যুগ্ম শব্দটি চিহ্নিত করুন।
ক. হাসি-খুশি
খ. আকাশ-পাতাল
গ. কালি-কলম
ঘ. দিন-দিন
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ ‘ছেলেটির যায় যায় অবস্থা’- ‘যায় যায়’ এখানে কোন্ অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. তাড়াতাড়ি
খ. ব্যস্ততা
গ. মৃতপ্রায় অবস্থা
ঘ. কোনটিই না
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ কোনটিতে শব্দের দ্বিরুক্তি ঘটেছে?
ক. ফোঁটা-ফোঁটা পানি
খ. মনে মনে ভাবছি
গ. হেসে-হেসে এল
ঘ. হেসে-হেসে বলল
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ টা টা কিসের অনুভুতিজাত ধ্বনি ?
ক. বৃষ্টির তীব্রতা
খ. ভূমিকম্পের তীব্রতা
গ. রোদের তীব্রতা
ঘ. বাতাসের তীব্রতা
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ নিচের কোনটিতে শব্দের দ্বিরুক্তি হয়েছে ?
ক. চল চল
খ. খল খল
গ. ফোঁটা -ফোঁটা
ঘ. হেসে হেসে
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ নিচের কোনটি অব্যয়ের দ্বিরুক্তি?
ক. নরম নরম হাত
খ. বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর
গ. দেখতে দেখতে আকাশ কালো হয়ে এল
ঘ. তার সঙ্গী সাথী কেউ নেই
উত্তরঃ খ

প্রশ্নঃ কোন দ্বিরুক্তিটি ধ্বন্যাত্মক শব্দ?
ক. শন-শন
খ. শীত-শীত
গ. পড়ো-পড়ো
ঘ. হাতে-নাতে
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ কোন দ্বিরুক্ত শব্দটি ক্রিয়াবিশেষণ হতে পারে ?
ক. ধনবান
খ. ভনভন
গ. ঘরবাড়ি
ঘ. চোরচোর
উত্তরঃ গ

প্রশ্নঃ ‘মেয়েটার যেন কালো-কালো চেহারা।’ এখানে ‘কালো-কালো’ কোন অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে।
ক. সামান্যতা
খ. আধিক্য
গ. তীব্র
ঘ. ধ্বনির ব্যঞ্জনা
উত্তরঃ ক

প্রশ্নঃ (রাশি রাশি) ধন। বাক্যে ব্যবহৃত দ্বিরুক্তিটি কি অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে ?
ক. সামান্য অর্থে
খ. আধিক্য অর্থে
গ. তীব্রতা অর্থে
ঘ. অনুরূপ অর্থে
উত্তরঃ খ

আরো পড়ুন: