০১. আহব – যুদ্ধ।
০২. অভিরাম – সুন্দর।
০৩. আকাল – দুর্ভিক্ষ।
০৪. কুণ্ডুয়ান – কুণ্ডলী পাকান।
০৫. শম – শান্তি।
০৬. মার্জার – বিড়াল।
০৭. কপোল-গণ্ডদেশ।
০৮. শিষ্টাচার – সদাচার।
০৯. অভিনিবেশ – মনোযোগ।
১০. নির্মোক – সাপের খোলস।
১১. গণ্ডগ্রাম – বৃহৎ গ্রাম।
১২. শ্বশ্রু – শাশুড়ি।
১৩. শ্মশ্রু – গোঁফদাড়ি।
১৪.প্রথিত – বিখ্যাত।
১৫. জঙ্গম – গতিশীল ।
১৬. প্রাকৃত – স্বাভাবিক।
১৭. বিরাগী – উদাসীন।
১৮. কেওয়াট – কপাট।
১৯. বহুব্রীহি – বহু ধান।
২০. অপলাপ – অস্বীকার।
২১. বামেতর – ডান।
২২. কনক – স্বর্ণ।
২৩. দিনমণি – সূর্য।
২৪. কিরীট – মুকুট।
২৫. কিরীটিনী – মুকুট ভূষিত।
২৬. হেমহর্ম – স্বর্ণনির্মিত অট্টালিকা।
২৭. আবিল – কলুষিত।
২৮. শৃঙ্গধর – পর্বত।
২৯. অহি – সাপ।
৩০. অবলেপে – সগর্বে; সদর্পে।
৩১. কৌমুদি – জোৎস্না।
৩২. কুমুদ -পদ্ম।
৩৩. কুঞ্জর – হাতি।
৩৪. সাদী – অশ্বরোহী সেনা।
৩৫. শূর – বীর।
৩৬. মকর – সমুদ্র।
৩৭. প্রভঞ্জ – প্রবল বায়ু।
৩৮. নিগর – শৃঙ্খল।
৩৯. বীতংস – পাখি ধরার ফাঁদ।
৪০. ভাল – কপাল।
৪১. বারীন্দ্র – সমুদ্র।
৪২. সমভিব্যাহারে – সঙ্গে নিয়ে।
৪৩. মৃগয়া – বনে গিয়ে হরিণ শিকার।
৪৪. সংহতি – সংযোগ সাধন।
৪৫. নীবার – উড়িধান;তৃণধান্য।
৪৬. ঈদৃশ – এই রকম।।
৪৭. মাদৃশ – আমার মতো।
৪৮. তাদৃশ – সে রকম।
৪৯. সমীপবর্তিনী – নিকটবর্তী হয়েছে এমন নারী।
৫০. আতপ – সূর্যকিরণ।
৫১. শোণিত – রক্ত।
৫২. আধার – আশ্রয়।
৫৩. প্রসবণ – ঝরনা।
৫৪. নিনাদ – শব্দ।
৫৫. নীপবৃক্ষ – কদম গাছ।
৫৬. রসাল – আম।
৫৭. বারিধি – সমুদ্র।
৫৮. আততায়ী – গুপ্তঘাতক।
৫৯. চরিতার্থ – সফল।
৬০. জণয়িতা – জন্মদাতা।
৬১. অন্তরায় – বাঁধা।
৬২. জিগর – হৃদয়,প্রাণ,মন।
৬৩. আঁশটে – মাছের আঁশের গন্ধযুক্ত।
৬৪. মীনসন্তান – মাছ।
৬৫. ধোঁয়াশা – ধোঁয়া ও কুয়াশার মিলিত ফল।
৬৬. কল্কি – তামাক ভরে তাতে আগুন দেওয়া হয় এমন পাত্র বা ছিলিম।
৬৭. পাটাতন – নৌকা বা জাহাজের কাঠের মেঝে
৬৮. জনান্তিকে – সংগোপনে; জনগনের আড়ালে।
৬৯. পতঞ্জলি – পাণিনি ব্যাকরণের ভাষ্যকার।
৭০. ওয়াগণ – মালগাড়ি।
৭১. আরক্ত – লালচে।
৭২. পাণিনি – বিখ্যাত বৈয়াকরণ।
৭৩. বর্ষীয়সী – অতিশয় বৃদ্ধা।
৭৪. রায়ট – দাঙ্গা।
৭৫. এল নিনিও – খুদে শিশু।


আরো পড়ুন: